পাহাড়ে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নে এবার প্রায় ৮শ কোটি টাকার উন্নয়ন প্রকল্প গ্রহন

 43 total views,  2 views today

নিউজ ডেস্ক

পার্বত্য চট্টগ্রামের তিন জেলার সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন, পর্যটন শিল্পের বিকাশ, বান্দরবানের যোগাযোগ ব্যবস্থার অসমাপ্ত কাজ সম্পন্ন করা এবং রাঙামাটি ও খাগড়াছড়ির যে সমস্ত সড়কের কাজ বরাদ্দকৃত অর্থে সমাপ্ত হয়নি তার রিভাইসের ব্যবস্থা ও বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত তিন পার্বত্য জেলার ৭ টি পৌরসভার সড়কগুলোর সংস্কার উন্নয়নে প্রায় ৮শ কোটি টাকার সড়ক অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প গ্রহন করছে সরকার। গত বুধবার (১৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি’র সাথে বৈঠককালে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন সরকারের এসব সিদ্ধান্তের কথা জানান।

এসময় পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর বলেন, তিন পার্বত্য জেলার উন্নয়নে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা খুবই আন্তরিক, এর অংশ হিসাবে এই উন্নয়ন প্রকল্প গ্রহন করা হচ্ছে। প্রকল্প বাস্তবায়ন হলে পার্বত্য জেলার সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থার অমূল পরিবর্তন আসবে। সভায় মন্ত্রী পার্বত্য চট্টগ্রামের তিন জেলায় বিভিন্ন প্রজাতির ফল ও মূল্যবান মসল্লা উৎপাদন কিভাবে বাড়ানো যায় তা খুজে বের করার জন্য প্রকল্প পরিচালকদের নির্দেশনা প্রদান করেন। পার্বত্য চট্টগ্রামের তিন জেলা রাঙ্গামাটি, বান্দরবান ও খাগড়াছড়ি’র পতিত জমিতে মূল্যবান ড্রাগন ফল, স্টবেরী, লিচু, রামবুটান, লটকন ইত্যাদির ফলন বাড়ানোর আহবানও জানান মন্ত্রী। এছাড়া পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদ ভবন নির্মাণের কাজ শীঘ্রই শুরু হবে বলে সভায় জানানো হয়।

সভায় অন্যান্যদের মধ্যে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরা, পার্বত্য মন্ত্রনালয়ের সচিব মেসবাহুল ইসলাম, রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষকেতু চাকমা, খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী, খাগড়াছড়ি এলজিইডির প্রধান প্রকৌশলী মোঃ আবদুর রশিদ খান, সিএইচটিআরডিপি’র প্রকল্প পরিচালক শাহ নুরুল কাদির, তিন পার্বত্য জেলার দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত পল্লী অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক মোঃ নুরুন্নবী উপস্থিত ছিলেন।

Share this:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *