প্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় ছাত্রীর ছবি তুলে ফেসবুকে, থানায় মামলা

 18 total views,  1 views today

নিউজ ডেস্কঃ

লামায় নবম শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্রী বিদ্যালয়ে যাওয়া পথে কয়েকজন বখাটে জোর করে ছবি তুলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ও জনগুরুত্বপূর্ণ স্থানে তার ছবি দিয়ে পোষ্টারিং করার অভিযোগ উঠেছে। এই বিষয়ে গত ২৮ আগষ্ট রাত সাড়ে ১১ টায় লামা থানায় মামলা করা হয়েছে।

এ ঘটনায় স্কুল ছাত্রীর মা বাদী হয়ে মামুন নামের এক বখাটের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো চার-পাঁচজন বখাটের বিরোদ্ধে অভিযোগ করেন। গত ২২ আগষ্ট লামা উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের বড়ছন খোলা এলাকায় ঘটনাটি ঘটেছে।

স্কুল ছাত্রীর মা বলেন, আমার মেয়ে চকরিয়া উপজেলার রশিদ আহমদ চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়ে নবম শ্রেণীতে পড়ে। গত এক সপ্তাহ আগে আমার মেয়ে বিদ্যালয়ে যাওয়া পথে পথরুদ্ধ করে আমাদের এলাকার বড় ছনখোলা পাড়ার জাফর আলমের ছেলে মোঃ মামুন (২৭) আমার মেয়েকে জোর পূর্বক জড়িয়ে ধরে ছবি তুলে। এ সময় আমার মেয়ে বাঁধা দিলে প্রাণনাশের হুমকী দিলে সে ভয় পেয়ে যায়। পরে ছবি গুলো দিয়ে আমার মেয়েকে জীম্মি করার চেষ্টা করে মামুন। এ ঘটনায় আমার মেয়ে ভয়ে স্কুলে যাওয়া বন্ধ করে দিলে বখাটে মামুনসহ তার সহযোগীরা ছবি গুলো ছাপিয়ে রঙ্গিন পোষ্টারিং করে এলাকার জনগুরুত্বপূর্ণ স্থানে লাগিয়ে দেয়। এছাড়া বখাটেদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুক ও ইমু আইডি থেকে ছবি গুলো পোষ্ট করে ছড়িয়ে দেয়। বখাটেদের ভয়ে এখন আমার মেয়ে বিদ্যালয়ে যাওয়া বন্ধ করে দিয়েছে। এ ঘটনায় আমরা প্রথমে আমাদের ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড মেম্বার আব্দুর রহিমকে বিচার দিই। ওয়ার্ড মেম্বার ঘটনাটি নিয়ে বৈঠকের চেষ্টা করলে বখাটে মামুনের বাবা- মা বৈঠকে না বসে এড়িয়ে যায়। পরে আমি এ ঘটনায় গত ২৮ আগষ্ট রাত সাড়ে এগারোটার সময় বখাটে মামুনসহ তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে লামা থানায় অভিযোগ করেছি।

Share this:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *