রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে অন্তত সাড়ে ৩শ ঘর ও দোকান পুড়ে ছাই

 33 total views,  1 views today

নিউজ ডেস্ক

কক্সবাজারের উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ভয়াবহ ভয়াবহ এক অগ্নিকান্ডের খবর পাওয়া গেছে। এতে অন্তত তিনশত বারটি রোহিঙ্গাদের ঝুপঁড়ি ঘর ও ৩৭টি দোকান পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। কুতুপালং লম্বাশিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ভয়াবহ এ অগ্নিকান্ডের ঘটনায় ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে আনুমানিক একশ কোটি টাকা। তবে এ ঘটনায় কেউ হতাহত হয়নি বলে জানা গেছে।

১২ মে মঙ্গলবার সকাল আটটার দিকে এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে।

সূত্র মতে, রোহিঙ্গা ক্যাম্পের প্রতিটি বাড়ীতে গ্যাসের সিল্ডিটার রয়েছে। অধিকাংশ রোহিঙ্গারা এর ব্যবহার বিধি জানে না। তাই প্রতিনিয়ত অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটছে। রোহিঙ্গারা এখন খোলা আকাশের নিচে মানবেতর জীপন যাপন করছে। রান্না ঘরের চুলা থেকে আগুনের সূত্রপাত হতে পারে বলে ধারণা সংশ্লিষ্টদের। অগ্নিকান্ডের খবর পেয়ে উখিয়ার ফায়ার সার্ভিসের দুইটি ইউনিট ঘটনাস্হলে যান। পরে রোহিঙ্গা ও স্হানীয়দের সহযোগীতায় আগুন নিয়ন্ত্রন আনেন।

লম্বাশিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পের হেড মাঝি ই ১ নম্বর ব্লকের বাসিন্দা আলী হোসেন বলেন, রান্না ঘরের চুলা থেকে আগুনের সূত্রপাত। অগ্নিকান্ডের পুড়ে গেছে রোহিঙ্গাদের ৩১২টি ঝুঁপটি ঘর। এরা এখন খোলা আকাশের নিচে বসে আছে।

এদিকে সকাল ১১টার দিকে ঘটনাস্হল পরিদর্শন করেন উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: নিকারুজ্জামান। এসময় সাথে ছিলেন উখিয়ার রাজাপালং ইউনিয়নের নয় নাম্বার ওয়ার্ডের সদস্য মৌলভি বখতিয়ার আহমদ ও কুতুপালং বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি হেলাল উদ্দীন।

উখিয়া ফায়ার সার্ভিসের ষ্টেশন মাষ্টার এমদাদুল হক বলেন, ফায়ার সার্ভিসের দুইটি ঘটনাস্হলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রন আনে। এখনো পর্যন্ত আগুনের সূত্রপাত জানা যায়নি। এ ব্যাপারে উখিয়া থানার তদন্ত ওসি নুরুল ইসলাম অগ্নিকান্ডের সত্যতা স্বীকার করেন।

Share this:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *